বাড়ির দেয়াল এফ্লোরেসেন্স মুক্ত রাখতে বার্জার নিয়ে এলো ‘মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ’

0

বাড়ির দেয়াল এফ্লোরেসেন্স মুক্ত রাখতে বার্জার নিয়ে এলো ‘মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ’

কোটিংসটুডে ডেস্কঃ

দেশের শীর্ষস্থানীয় পেইন্ট সমাধানদাতা প্রতিষ্ঠান বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেড (বিপিবিএল), সম্প্রতি বাজারে নিয়ে এসেছে এর নতুন পণ্য ‘মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ’। ব্যতিক্রমী প্রযুক্তিতে তৈরি বিশেষ এই পণ্যটি লবণাক্ততার ফলে দেয়ালে জন্মানো এফ্লোরেসেন্স গঠন প্রতিরোধ করবে এবং বাড়ির দেয়ালকে রাখবে সুরক্ষিত ও সুন্দর। এফ্লোরেসেন্স হচ্ছে জমা হওয়া লবণের সাদা রঙের স্ফটিক। দেয়াল, মেঝে বা বিল্ডিংয়ের অন্য কোন পৃষ্ঠে পানির উপস্থিতি থাকলে সেখানে  এফ্লোরেসেন্স জমতে পারে। এফ্লোরেসেন্স গঠন প্রতিরোধ বা প্রতিকারে নিখুঁত সমাধান মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ।

 

বাড়ির দেয়াল এফ্লোরেসেন্স মুক্ত রাখতে বার্জার নিয়ে এলো ‘মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ’

পণ্যটি দেয়ালের স্তরের ভিতরে প্রবেশ করে এবং লবণকে পৃষ্ঠে আসতে বাঁধা দেয়। এভাবে, এটি ত্রুটিযুক্ত উপরিপৃষ্ঠ রোধের নিশ্চয়তা দেয় এবং প্লাস্টার ও কোটিংকে করে তোলে আরও দীর্ঘস্থায়ী। এ ব্যাপারে বার্জার পেইন্টস বাংলাদেশ লিমিটেডের সেলস ও মার্কেটিংয়ের সিনিয়র জেনারেল ম্যানেজার মো. মহসিন হাবিব চৌধুরী বলেন, ‘বর্ষা মৌসুমে, আর্দ্রতা এবং স্যাঁতসেঁতে আবহাওয়া একসাথে আমাদের বাড়ির জন্য ক্ষতিকর হয়ে দাঁড়াতে পারে। বৃষ্টিপাত, ঘনীভবন, শিশির, আর্দ্র পরিবেশ এবং সিমেন্ট ট্রাওয়েলিংয়ের সময় ব্যবহৃত অতিরিক্ত পানি এফ্লোরেসেন্স গঠনে ভূমিকা রাখতে পারে। মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ এমনভাবে তৈরি করা হয়েছে, যাতে এটি দেয়ালে ব্যবহার করলে পানি জমে নোনা ধরা থেকে দেয়াল রক্ষা পায়।

প্লাস্টারওয়ার্ক থেকে পুরানো ইটের দেয়াল, এটি যেকোন ধরনের স্তরের জন্য উপযুক্ত। স্যাঁতসেঁতে, অবাঞ্চিত এবং অস্বাস্থ্যকর দেয়াল নিয়ে যারা চিন্তায় আছেন, বিশেষত চলমান বৈশ্বিক মহামারিতে যখন স্বাস্থ্যকর ইন্টেরিয়রের প্রয়োজনীয়তা সবচেয়ে বেশি, তাদের জন্য সল্ট ওয়াশ সহায়ক হতে পারে।’

রাসায়নিকভাবে সক্রিয় উপাদান না থাকায় মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ সার্ফেস প্রাইমার হিসেবে এফ্লোরেসেন্স প্রতিরোধে অত্যন্ত কার্যকর।

সিমেন্টের পৃষ্ঠের জন্য এটি একটি শক্তিশালী প্রাইমার/সিলার হিসেবে কাজ করে। নোনা ধরা থাকুক বা না থাকুক, সল্ট সেফ পুরানো ও নতুন উভয় দেয়ালে ব্যবহার করা যেতে পারে। তবে, মূলত দেয়ালের পৃষ্ঠে যখন সাদা খনিজ লবনগুলো দেখা যায়, এটি তখন ব্যবহারের পরামর্শ দেয়া হয়। পানিবাহিত এ প্রডাক্টটি এফ্লোরেসেন্স রোধ করতে বা কাটিয়ে উঠতে লবণকে নিস্ক্রি করে ফেলতে পারে। তবে, স্যাঁতস্যাঁতে অবস্থা যখন বাড়তে থাকে, দেয়ালের স্তরে লনণ তখন আরও বেড়ে যেতে পারে। এই ধরনের প্রতিকুল পরিস্থিতে, মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ সন্তোষজনকভাবে কাজ নাও করতে পারে।

সম্ভাব্য সর্বোচ্চ ফলাফল পেতে পণ্যটি সঠিক নির্দেশনা অনুসারে প্রয়োগ করতে হবে। এফ্লোরেসেন্সের উপস্থিতি প্রাণঘাতী না হলেও, এটি অতিরিক্ত আর্দ্রতা নির্দেশ করে। তাই, ছত্রাক বৃদ্ধি বা চোখে না পড়া কাঠামোগত ক্ষতির মতো অপ্রীতিকর পরিস্থিতির সম্মুখীন না হতে চাইলে এই ধরনের অসঙ্গতিতে তাৎক্ষনিকভাবে ব্যবস্থা গ্রহণ করা উচিত। বার্জারের নতুন মি. এক্সপার্ট সল্ট সেফ এফ্লোরেসেন্স প্রতিরোধ করে এবং দেয়ালের ওপরের স্তরের সংযুক্তি ও স্থায়িত্ব নিশ্চিত করে।

About Post Author

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *